শারদ রিক্যুয়েম

শঙ্খশুভ্র দেববর্মণ


বর্ণহীনতার বন্ধক নিয়েছে
অরণ্যের রঙ, অনুগত অন্ধকার
ধুসর গাছের পাতা ছোঁয়া দীঘল দিগন্ত

বুকে তবু উজ্জ্বলতর বৃষ্টিহীন অনস্তিত্বের ছবি
হিমবন্ত দেহে উষ্ণতার স্মৃতিচিহ্ন
রেখে যায় ঠিকানা বিহীন ম্যাজেন্টা চিঠি

বনানীর মাঝে সংগোপিত প্রাচীন স্বপ্ন
দৃশ্যমান হয়ে উঠে অপরাজিত জনপদ
অধীত বিদ্যার পথে পড়ে রয় এলোমেলো পুঁথি সব

দ্বৈত চরিত্রে অপারগ তো নয় নিভৃত শরৎ
শিশির স্পর্শে অঞ্জলিরত শিউলি-রমণী
পাহাড়ি নদীর বুকে ক্ষণস্থায়ী চর
ফিরে আসে বারবার উন্মনা কাহিনী

উপত্যকায় বাজছে তখন বিসর্জনের ঢাক
একাঙ্কের পর নেমে আসে রাত, অশ্রুনদীর দাহ

নির্জনতায় হারিয়ে যায় ছোট্ট কুঁড়েঘর!

অলংকরণঃ অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়

ফেসবুক মন্তব্য