ধার্মিক ও নিষ্ঠাবান মানুষের কবিতা

রাণা রায়চৌধুরী

আমি লাফ মারা শিখিনি, আমি লাফ মারা শিখতে চাই। অমিয় ব্যানার্জি লাফ মেরেছিল ১৯৬০-এ। অর্থাৎ আমার জন্মের এক বছর আগে। জ্যৈষ্ঠ মাসের গরমে অমিয় ব্যানার্জি লাফ মেরেছিল। তার শব্দে কাঁচা আম, গাছ থেকে ছিটকে পড়েছিল, অষ্টাদশী সুধাময়ীর নরম বুকের ওপর। লোকজন রে রে করে উঠেছিল। আমি অমিয় ব্যানার্জি নই। আমি লাফ মারা শিখিনি এখনো। যদিও আমার দীর্ঘলম্ফনে একবার চাঁদের একটা অংশ খসে পড়েছিল অবিবাহিত নটু সান্যালদের ছাদে। ছাদে টিভির অ্যান্টেনায় টুকরো চাঁদের, টুকরো আলোটুকু, আটকেছিল অসহায় বালকের মতো। সে এক রগড়, লোক জমেছিল অনেক। মুখ্যমন্ত্রী ছুটিও দিয়েছিল ইস্কুলের বাচ্চাদের। তাতে শিক্ষামন্ত্রী খুশি হয়ে হা হা হেসেছিল। শিক্ষামন্ত্রীর গোয়ালের গরুগুলোও হেসেছিল খুব। আমার উচ্চলম্ফনে ফিলোজফারের বইয়ের র‍্যাকও ভেঙেছিল শ্রাবণের বাইশ তারিখে।

ফেসবুক মন্তব্য