দুটি কবিতা

তৈমুর খান

আমার ঘর

এখানে শহর নেই
মাটির বাড়ির দাওয়ায়
নিঃস্ব পিতার ছায়া পড়ে আছে
মায়ের নিকোনো উঠোনে বৃষ্টির দাগ
আমাদের কিশোরবেলা আজও ছুটোছুটি করে
অদূরে মাটির কলসি ঠাণ্ডা জল নিয়ে বসে আছে

পিপাসা পেলে যাই তার কাছে
পাতার জ্বালে সেদ্ধ হয় ভাত
নতুন ধানের গন্ধে ঘর ভরে আছে




আমাকে যেতে হবে

চোখে শুকনো অশ্রু নিয়ে এসেছি
কলামন্দিরের পাশে তুমি দাঁড়িয়ে আছ
তোমার মাথায় নেমেছে বিকেল

এখনও আমি বৈরাগ্যকে খুঁজছি
কেউ চিৎকার করে ডাকেনি আমাকে
অপেক্ষার দিনরাত পার হয়ে
একটি নিজস্ব আয়নায় এসে দাঁড়িয়েছি

তুমি কলামন্দিরের পাশেই রূপক
ডানে বামে ঘাড় ঘোরাচ্ছ অতীত ও ভবিষ্যৎ
মাঝখানে স্বর্ণময়ী রোদ
তোমার মুখের আলো

তীব্র নিয়ন্ত্রণের ভেতর ছুটে যাচ্ছে ট্রেন
আমাকে যেতে হবে অন্ধকারের দিকে
নিশ্চুপ কথারা সব ছুটোছুটি করে
কিছু কি বলতে চায় শেষ কথা তোমাকে?

ফেসবুক মন্তব্য