তিনটি কবিতা

চয়ন ভৌমিক

চিহ্ন

বয়স তো মনের।

ওখানে পাকা চুল নেই,
কুঁচকানো ত্বক নেই

ফি-বছর জন্মদিনের
হিসেব রাখা নেই।

তুমি, আমি, আর আমাদের অন্তর্নিহিতদের
বুঝবে না কেউ...

বাইরের দাগ জীবন বিজ্ঞান

সমুদ্রগভীরে শুধু
রকমারি মাছ ... স্বচ্ছসলিল আয়না...
নিমগ্ন ঢেউ।


ভ্রমণ

এই তুমি বাজারে গেলে,
তারপর স্নান।

ফিরে এলে ভিজে চুল নিয়ে...

এবার মন্দিরগমন,
ধুলো - ঘাম - আগুন মেখে

দীক্ষামন্ত্রের খোঁজ।

উপবাসী তুমি, ঘুরে ঘুরে ক্লান্ত
নিজগৃহের কপাল লিখেছো
পীঠ ভ্রমণে

স্বপাক নাও এবার,
খাও অন্নজল, পুজোর প্রসাদ।।

উৎসব

এইবার অবকাশ।

একটা গ্রুপ ফোটোর পাশে রজনীগন্ধার স্টিক
'নব আনন্দে জাগো' যথা বন্দনা।

ছাতা খোলো এবার পথিক
মিষ্টির প্যাকেট হাতে
হেঁটে চলো পিঁপড়ে সারির গা ঘেঁষে।

আসছে স্বাধীনতার খবর
প্রাতঃভ্রমণের পর এক কাপ চা

তারপর বাগান জীবন।

ফেসবুক মন্তব্য