রাত্রিকালীন দু চার লাইন...

নিলয় নন্দী



এই তো এখনি তোমার সঙ্গে কথা হলো।

বললে, চাঁদটা দেখো আজ। তাকাও...
চাঁদ নিয়ে যদিও আমার কোন আদেখলা ফ্যান্টাসি নেই। তবু তাকাই। গোল ময়দার রুটির মত চাঁদ। ভিতরে ব্যাঙ্কোয়েট হল। ইতস্তত ওয়েটার। অচেনা আমন্ত্রণ মুখ। মদিরা শ্যাম্পেনে জ্যোৎস্না সাবলীল। কবির পকেটে অঙ্গুরীয়। কবি তো নষ্ট মানুষ, তাই তার গায়ে এসে পড়ে মেসোপটেমীয় চাঁদ, গিলগামেশ অক্ষর। আক্ষরিক সীমা ছাড়ালে শুভ্র গাউনে এসে থামি। আর কতবার বনলতা ডাকবো তোমায়! আঙুলে আঙুল খুঁজে পেলে চূড়া ছুঁয়ে যায় চুম্বনগ্রাফ। উপছানো ওয়াইনে স্যাক্সোফোন কারুকাজ। শ্রাবস্তী শরীরে....

অন্ধকার বাড়লে জ্যোৎস্নাও মাত্রাহীন হয়।
ইনসমনিয়া চড়ে ইচ্ছেশরীরে।
চাঁদ, তাঁবু এবং...

ফেসবুক মন্তব্য