ম্যাড মঙ্ক

শুভ আঢ্য

১৭
প্রস্থান একটি সরণ মাত্র, তার অনুরূপ আর দুটি
জায়গার মধ্যে নিজের অবস্থান চেখে নেওয়া,
জেনে নেওয়া কিভাবে সেই আবহাওয়াগত মিল তুমি
শরীরে বসাবে তোমার, অথচ তোমরা বিতাড়ন করলে
সেই আমায়, ভারখোতুরইয়ে আমার আত্মা দেখতে
কি অসম্ভব ব্যাকুল আমি মেনে নিলাম প্রস্থান এক
যুগান্তকারী শাস্তি, তস্কর জানে তার ক্রমের গতি প্রকৃতি
জেনে গেলে ক্রমান্বয়ে তা পরিবর্তন করাই শ্রেয় এবং
নিষ্ক্রান্ত তারই এক প্রক্রিয়া - সুতরাং বেহদ্দ গ্রিগরি আমি
নিজের আত্মার সাথে অর্থোডক্স কিছু আদানপ্রদানে
এগোই, সেই ৫৩৮ কিলোমিটার পেরিয়ে দেখবো ঈশ্বরের মতো
কেউ রুটি আর মদের পেয়ালা হাতে অপেক্ষমান

এই যাত্রা, এই পথ - ঈশ্বর, আমার কামনাকে মুক্তি দিন
তিনি আমার অপেক্ষার অধিক হয়ে উঠুন, তিনি
মোক্ষের ওপরে দেখুন লাল চেরী, কেকের ওপরে
কেবলমাত্র চেতনা হয়ে বসে রয়েছে, অগত্যা এই অপেক্ষা

এই প্রকরণ, চামড়ার ব্যাপারী, যৌনাচার ছেড়ে তোমার
তীব্র নেশায় সরণ... ফিও ছেড়ে, শীতকাল ফেলে
কোনো সরণের দিকে আকর্ষিত গ্রিগরিকে যেতে দাও
যেতে তোমরা দাও ভারখোতুরইয়ে, তার প্রতি আরও
প্রাচীন হয়ে ওঠো, এ শ্রমকে করুণা কোরো না
শুধু চেতনায় থেকে যাবো ঈশ্বরের সামনে এই 
শেষতক গালি তোমাদের ঠোঁটকে নাড়াক, বিদায়!



১৮
তোমার স্তন থেকে অধিকার হারিয়েছি
আমার মদ আমারই মতো বেপরোয়া, উদাস
আমায় তোমার অধিকারহীনতা থেকে নামিয়ে দাও
তোমাদের কর্তব্য মানে তো রসদ জোগানো সকাল
আর রাতে সেই আবরণ খুলে আবারও জোগানো রসদ
এসব থেকে আমায় মুক্তিই দাও ফিও, তোমাদের দায়িত্ব
এক কঠিন অসুখের মতো হাত-পা-মাথা-বুক ক্রমে
একটা মানচিত্র দখল করে নেবে, এই ৫২৩ কিমি
আমার জীবন, এই ভিক্ষাবৃত্তি, ঈশ্বরের সাথে দাবার
আসন ভাগাভাগি আর মাংস, এতেই ডুবেছি

আমার কোনো ভবিষ্যৎ নেই, আমার সন্ততি শুধুই
ফলাফল, তার কোনো ইতিহাস আমি লিখিনি, তারা
আমার মতো মাতাল উন্মত্ত কারুকে ক্ষমা করুক

এ রাস্তা সাকার, কেবল নিরাকারের দিকে চলে গেছে
ঈশ্বরের দিকে আলো নেই, আমি দেখতে পাচ্ছি সে
অন্ধকারে এক পিয়ানোবাদক বসে আছেন, আমি
ডাক শুনতে পাচ্ছি, লক্ষ জার একসাথে ভেঙে যাচ্ছে
অথচ কাচের টুকরো নেই কোথাও অর্থাৎ আমাদের
প্রচলিত ধারণা একটার পর আরেকটা ভেঙে গেল

তোমার শরীরে তুমি গাউন চাপাও হে, এই তীব্র শীতে
র‍্যাপারের ভেতর ধারণার ঘরবাড়িতে শার্সি দিয়ে রাখো, 
আগুনও জ্বালাও, আমিই সে আগুন যে কাঠের পুতল
থেকে, তার দাহ্যতা থেকে সরে এসেছি, ক্ষমা করো

ফেসবুক মন্তব্য