আমরাগুচ্ছ

তৈমুর খান


আমরা টুকরো টুকরো সম্পর্ক নিয়ে চলে যাচ্ছি
এগুলো সেলাই হবে না, ইতিহাস হবে না
রাষ্ট্রনেতারা তীব্র শ্লেষ ছড়িয়ে দিচ্ছে
মানবীর গর্ভে জন্ম দিচ্ছে সাম্প্রদায়িক সন্তান

আমরা পরিচয় হারাচ্ছি
সভ্যতা দেখছে আমাদের

আজ আমাদের ভাঙা দেশ, ছেঁড়া সম্পর্ক
আর ভাগাড়ের উল্লাস



এইখানে মৃত্যুর বাড়ি
রোজ এসে আমরা জীবন প্রার্থনা করি
রাঙা মেঘ হয়ে ভাসে জীবনের আবেগ
আবেগ তো যুক্তিহীন, সত্যহীন নিসর্গ মরীচিকা

ঝড়ের তাণ্ডবে লুটোপুটি খায়
চূর্ণবিচূর্ণ দিন ক্ষয় হতে থাকে
চাঁদ ডেকে ডেকে ফিরে চায়
আমাদের ঘুমহীন বারান্দা একা

প্রার্থনা দীর্ঘ হয় কলঙ্কিত রাত্রির কাছে



সব রাস্তাগুলো কোন্ দিকে গেছে?
আমাদের ধারণার উত্তরগুলো ধর্মপুস্তকে উঠে এসেছে
আমরা জীবনকে দোলাতে থাকি ধর্মের কাছে
সব ধর্ম Nothing can be made from nothing.

শুধু এক বৃহৎ শূন্যের হাতে নিজেকে তুলে দিই
জীবন দাঁড়িয়ে থাকে ধর্মের ধারণার কাছে
ধর্মের ষাঁড়েরা এসে যদিও শিং নাড়ে

আমরা ভিরু, আলো জ্বেলে অন্ধকার দেখি



তপস্যাও ক্লান্ত হয়
বৃষ্টিস্নাত করে
শরীর যদিও বল্মীকের ঘর
ক’জন বাল্মীকি হই?

তীর্থে তীর্থে আমরা সবাই দস্যু রত্নাকর



বিভাজন নিয়ে আমরা সবাই বিভাজিত
যদিও কাছাকাছি থাকি
কাছে থেকে দূরে দূরে রাখি
দুপুরে কোকিল ডাকে
আইবুড়ো ভাত

আমাদের বসন্ত আসে যৌবনের সংরাগে
আমরা গুটিয়ে থাকি রেশমের গুটি কেটে কেটে

নিবেদন আমাদের আত্মার দোসর

ফেসবুক মন্তব্য