অ্যালজোলাম

সন্দীপ কুমার মণ্ডল

ঘুমিয়ে আছি অ্যালজোলামে।
প্রেমিক চোখে ঘুম অচেনা, স্মৃতিগুলো বড্ড নাছোড়,
হিসেব রেখো খরচ জমা-
ফাগুনবায়ে দূরত্ব সব, পলাশ রঙের বিষণ্ণতা।
বেমানান এই সাদা রুমাল পুরুষ চোখের ভিজে কোনে...
মুছে নেব অ্যালজোলামে।

এক জীবনের বন্যা ভাসা শুকিয়ে গেছে সংগোপনে
চিঠি লেখা ছেড়ে দেব দূরত্ব আর নীরবতায়
আর কতটা নীরব হলে নীরবতার সংজ্ঞা জানা
ছাদের উপর চাঁদ জাগছে, রাত জাগছ সম্মোহনে।
চোখ বন্ধ অ্যালজোলামে

ভিক্ষা নেব চার হাত মাটি, বিনিময়ে এই জীবনের
অগোছালো বাস্তুজমি, বীতশোকের তবিলদারি;
ধূপ জ্বালিও মাথার পাশে, উড়বে ধোঁয়া অভিপ্রায়ের
হাত ছাড়ানোর শব্দ কেমন বসিয়ে দিও শূন্যস্থানে।
ঘুম কিনেছি অ্যালজোলামে।

আবার কোনো বৃষ্টি এলে, বন্যা এলে এই ফাগুনে
চেয়ে নেব জন্ম-ভূমি, জল জমানো চোখের কোনে
মিশিয়ে দেব; স্বপ্ন কেনা সর্বনাশের আবাদভূমি।
অবশ চোখে ঘুমিয়ে আছি পুনর্জীবন সন্ধানে,
জেগে আছি অ্যালজোলামে।

ফেসবুক মন্তব্য