ভাবি জানো...

সুমনা পাল ভট্টাচার্য



(১)
অনেকদিন পর মাটি খুঁড়ে বেরোবে পাঁজরের আগুন
সেই অনেক দিন পর তোমার বুকের ভেতর খনন করে কেউ পেয়ে যাবে এক অচিন জঙ্গল...
তারপর, মৃত,শুকনো, ধূসর বল্কল সরিয়ে সবুজ সাজাতে চাইবে হাজার হাজার উন্মুখ প্রত্নতাত্ত্বিক

খানিক দূরে নজরে আসবো আমি, আমার ভাঙা-চোরা হাড়গুলোকে কুড়িয়ে আনতে গিয়ে হঠাৎ তারা আবিষ্কার করবে এক ফল্গু নদী...
তখনও জীবন্ত, বাঙ্ময়...

ওরা বলে উঠবে 'ইউরেকা'
ঠিক, তখনই আমার একখানা আঙুল রাখবো তোমার বুকের বাঁপাশ ঘেঁষে, বাদামী ওষ্ঠে দুরন্ত বাতাসের মত বয়ে আনবো নি:শেষ প্রেম...

সময় তাকাবে ঘুরে, ইতিহাস শোনাবে অমরত্বের গান, আবার, আরও একবার।।

(২)
সন্তানের পঙ্গুত্বের দায় প্রসবিনীর -
গর্ভকোষের গায়ে অন্ধকারের আঁচড় কেটে একথা শুনিয়ে গেলো ওরা...

বেশ তো, তবে,
হুইলচেয়ারে এলিয়ে পড়া সম্পর্কের গায়ে তুলে ধরো উদ্ধত তর্জনী, লিখে দাও আমার নাম...
তোমার মিথ্যে প্রতিশ্রুতির রণন লুকিয়ে রাখলাম চাকার নীচে, তোমার পলাতক উড়ানে বিলিয়ে দিলাম ক্ষত বিক্ষত সমর্পণের কঙ্কাল।

যুদ্ধ শেষ।
মায়ের আঁচল দিয়ে মুছিয়ে দিই বিকলাঙ্গ সন্তানের ঘাম।
খয়াটে শরীরের নীচে গোপনে ডুবে যাক জন্মসূত্র, পিতৃপক্ষ...

ফেসবুক মন্তব্য