শিল্প -শালীনতা

সোনালী মিত্র

কাল সারারাত দরজায় কড়া নেড়ে ফিরে গেছে
নাগকেশরের ফুল তুলে এনে দিত যে ছেলেটি।
নীল বিকালে শ্যাওলা দীঘির ঝিল থেকে
আমার আদুরে বেণীতে পরিয়ে দিয়ে বলত--
টিউলিপ ফুল পরিরা দেখতে ঠিক তোমার মত হয়।
কদমডাঙার মাঠে জলফড়িঙের ডানা থেকে
সূর্যরঙ চুরি করে আমার ডালিম ঠোঁটে গুঁজে
বলেছিল - পৃথিবীর সব রঙের কারখানাই
ঠোঁটে।

অথচ গুহ্যদেশ ভেদ করে পতন ডেকেছে আয় , আয়...
গুহাদেশের অভিশাপ ডেকেছে যেখানে বৃষ্টিতে সাপেরা
সর্পিণী সঙ্গমে।
গুহা ভাস্কর্য দেখিয়ে দিয়েছে তার শিল্পী স্বত্বা
আর আমার আঁচল খুলতে খুলতে বলেছিল --
সমস্ত শিল্প সৃষ্টি হয় চোখে ,
বৃষ্টিবাদল বুকেই থাকে , দে ভিজিয়ে দে রে ।

এইসব ডাক উপেক্ষা করে বুঝেছি
শিল্পের গায়ে শালীনতা শব্দ ঝুটা মুক্তো
সৌন্দর্য আছে , নির্ভরযোগ্যতা তেমনটি সুগঠিত নয়।

ফেসবুক মন্তব্য