জলরং থেকে তিনটে কবিতা

শবরী রায়


অর্ধেক না-শোনার ব্যথা নিয়ে
লাইটপোস্ট দাঁড়িয়ে থাকে প্রায়ান্ধকারে

হেপাটাইটিস বি-র জীবাণু নিয়ে
হেঁটে যায় সরু অন্ধগলি

গাছটা জানেনা টি-এন্ড এর মুখে
কী এবং কী কী আছে

ছবি তৈরি হয়, কেউ দেখে না
অদৃশ্য ক্যানভাস...
ছবি তৈরি হয়

* * * *

আমার রাতপোশাকের গাঢ় বেগুনি সিল্ক
গলে যাওয়া চকোলেট
গরমজল থেকে তুলে আনা গোড়ালির গোলাপ গ্লিসারিন
তোমার স্বপ্নকে ধার দিলাম

বাস্তবে এসব কেউ দেখেনি কোনদিন
কারণ রাত হলেই এক দীর্ঘ মোমবাতি জ্বলে
তার গলে যাওয়া আঠালো অশ্রু
টুপটুপ করে জারিয়ে যায় আমার মেধার ভেতর।

* * * *

সমগ্র দেহ জুড়ে
কাটাকুটি খেলার দাগ

কাচের টেবিলে ছায়া পড়েছে
বার্ধক্য আর জরার
নেশা এবং নেশা মুক্তির

দেবার জন্য দুটোই মাত্র দান
বুদ্ধ আর শূন্য

ফেসবুক মন্তব্য