চতুষ্পদ

সুবীর সরকার


বেড়াল

আর ঝাউগাছের আড়ালে চোখের জল
অদ্ভূত কুটুমেরা আসে
দিনগুলি বিলাপের মত
প্রান্তরে জেগে থাকে চুপিচুপি কোন
বেড়াল

হোঁচট

অসহ্য লাগে। জোড়া জোড়া চোখ।থাবা এগিয়ে
আসে
সাজানো ঘরবাড়িতে শূণ্যতা ও শিষ
প্রহারের জাদু নামিয়ে আনছে নরম রোদ
হোঁচট খাই। এগোতে পারি না
আর

ডায়েরি

স্মরণযোগ্য ভেংচি বুকে বিঁধে থাকে। সন্ধ্যের লোকাল ট্রেন আর
তাকে স্বাগত জানাতে প্রান্তিক স্টেশন। জামআমলিচুর ভূগোল।
প্রসাধন বলতে করতলে হলুদ মাখা। পুরাণের পাশে প্ররোচনা
হয়ে ফিরে আসা

হাহাকারের কবিতা

সে কি অসুখের ভিতর ডুবে গিয়ে হাহাকার সরিয়ে আনতে পারবে!
তারাভরা আকাশের নিচে আত্মগত হয়ে ওঠা থেকে সে কি নতুনভাবে
শুরু ও শেষ নিয়ে ভাবতে থাকবে! ম্যাজিকের মত এক জীবন চাইছি
বহুমাত্রিকতার বাইরে ঘনঘন ঢঙ বদলানো। দু চার লাইন পরপরই
আখখেত, বৃষ্টি ও খন্ডবিখন্ড

ফেসবুক মন্তব্য